স্ন্যাপচ্যাট-স্পটিফাই সহ একাধিক অ্যাপ সাময়িকভাবে বন্ধ, বিপাকে ব্যবহারকারীরা

প্রকাশিত: 5:42 AM, November 18, 2021

স্ন্যাপচ্যাট-স্পটিফাই সহ একাধিক অ্যাপ সাময়িকভাবে বন্ধ, বিপাকে ব্যবহারকারীরা

নিউজ ডেস্কঃ হঠাৎ কাজ করা বন্ধ করে দিলো স্ন্যাপচ্যাট। শুধু স্ন্যাপচ্যাটই নয়, স্পটিফাই, গুগল ক্লাউড সহ একাধিক সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম বন্ধ হয়ে গিয়েছিলো বেশ কিছুক্ষণ সময়ের জন্য।

গতকাল রাতে হঠাৎ স্পটিফাই, ডিসকর্ড, স্ন্যাপচ্যাট এবং ইটিসির মতো সাইট এবং পরিষেবাগুলি এক ঘন্টারও কম সময়ের জন্য বন্ধ হয়ে যায়। ধীরে ধীরে আবার চালু হয় এই সমস্ত অ্যাপ। যে সমস্ত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম বন্ধ হয়ে গিয়েছিল কিছুক্ষণের জন্য, প্রতিটি সংস্থার তরফেই সেই কথা স্বীকার করে নেওয়া হয় এবং ভবিষ্যতে যাতে ব্যবহারকারীদের সমস্যার মুখে পড়তে না হয়, সেই প্রতিশ্রুতিও দেওয়া হয়।

গুগলের তরফে জানানো হয়, তাদের ক্লাউড নেটওয়ার্কিংয়ে সমস্যা দেখা দিয়েছিল। তার কারণে নিজস্ব ক্লাউড (যেখানে যাবতীয় তথ্য জমা থাকে) পরিসেবায় যেমন অচল হয়ে পড়েছিল, তেমনই গুগলের ক্লাউড পরিষেবা ব্যবহারকারী এটসি, স্পটিফাই ও স্ন্যাপ সংস্থার অ্যাপও বন্ধ হয়ে যায় বিশ্বজুড়ে। বিষয়টি ব্যবহারকারীদের নজরে পড়তেই হাজার হাজার মানুষ ডাউনডিটেকটর ডট কম নামক একটি ওয়েবসাইট, যেখানে কোনও পরিসেবা বন্ধ হয়ে গেলে, তার কারণ খোঁজার চেষ্টা করা হয়, সেখানে জানানো হয়।

উল্লেখ্য, গুগলের ক্লাউডের ড্যাশবোর্ডে আগেই দেখা গিয়েছিল যে ক্লাউড ডেভেলপার টুল, ক্লাউড কনসোল ও ক্লাউড ইঞ্জিনে সমস্যা দেখা দিয়েছে।

গান শোনার অ্যাপ স্পটিফাইয়ের তরফেও পরিষেবা স্তব্ধ হয়ে যাওয়ার পরই টুইট করে বলা হয়,”আমরা কোনও রকম সমস্যার মুখে পডেছি এবং তা সমাধানে কাজ চালানো হচ্ছে”। প্রায় ৫০ হাজারেরও বেশি স্পটিফাই অ্যাপ ব্যবহারকারী সমস্যার কথা ডাউন ডিটেকর ওয়েবসাইটে জানিয়েছে বলে জানানো হয়।

এদিকে স্ন্যাপচ্যাট সাপোর্ট গ্রুপের তরফেও টুইটে বলা হয়, ” বহু স্ন্যাপচ্যাট ব্যবহারকারীই অ্যাপটি ব্যবহার করতে গিয়ে সমস্যায় পড়ছেন। একটু ধৈর্য্য ধরুন, আমরা অ্যাপ চালু করার চেষ্টা করছি। আপাতত আপনাদের লগ ইন করে থাকতেই অনুরোধ করা হচ্ছে।”

এর আগে গত মাসে প্রায় ছয় ঘণ্টার জন্য বন্ধ হয়ে গিয়েছিল মেটা (যা আগে ফেসবুক নামে পরিচিত ছিল)-র অধীনে থাকা সমস্ত অ্যাপ কাজ করা বন্ধ করে দিয়েছিল। এর জেরে বিশ্ব জুড়ে কয়েক কোটি মানুষ সমস্যার শিকার হয়। সেই সময় সংস্থার সিইও মার্ক জুকারবার্গ ফেসবুকে জানিয়েছিলেন, ফেসবুকের ‘ডোমেন নেম সিস্টেম’ বা ডি এন এস-এ সমস্যা হয়েছিল।

যদি ধরে নেওয়া হয় ডোমেনের নাম ফেসবুক.কম, তাহলে সেই নামটিকে উপযুক্ত ইন্টারনেট অ্যাড্রেসে পরিবর্তিত করে এই ‘ডোমেন নেম সিস্টেম’। আর সেখানেই গোলমাল বাধায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম জায়ান্ট তাদের মূল ওয়েবসাইটের সঙ্গে যুক্ত হতে পারছিল না। তার জেরেই এ ভাবে সবকটি পরিসেবা বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে। বেশ কয়েক ঘণ্টা ধরে কর্মীরা তৎপরতার সঙ্গে কাজ করেন। তারপরই আবার পরিসেবা চালু করা সম্ভব হয়।

ফাস্টলি নামক একটি ক্লাউড কোম্পানি, যার কারণে গত জুন মাসে বিশ্ব জুড়ে ইন্টারনেট পরিসেবা বন্ধ হয়ে গিয়েছিল, তাদের তরফে জানানো হয়েছে, ক্লাউড পরিসেবায় ধীরে ধীরে সমস্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। মূলত যখন একই ক্লাউড পরিসেবা একাধিক সংস্থা ব্যবহার করছে, তখন এই সমস্যা আরও বড় আকার ধারণ করছে।