পূর্ণাঙ্গ জাতীয় সংগীত হলো নতুন সংগীতায়োজনের মাধ্যমে

প্রকাশিত: 6:29 AM, April 12, 2021

পূর্ণাঙ্গ জাতীয় সংগীত হলো নতুন সংগীতায়োজনের মাধ্যমে

বিনোদন ডেস্কঃ  ২০২১ সাল স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তির বছর। বছরটা স্মরণীয় করে রাখতে নতুন আঙ্গিকে জাতীয় সংগীতকে উপস্থাপন করেছে পরিবর্তন ফাউন্ডেশন। গানটি তৈরি করা হয়েছে তরুণ প্রজন্মের জন্য। দেশের উদীয়মান তরুণেরা গানটি গেয়েছেন। গানটি মুজিবনগর দিবসের ৫০ বছর পূর্তিতে শ্রোতাদের জন্য অনলাইনে উন্মুক্ত করা হয়েছে।

১৯৭১ সালে পাকিস্তানি হানাদারদের আক্রমণে নিহত হওয়া শহীদদের উৎসর্গ করা হয়েছে নতুন আঙ্গিকে গাওয়া এই পূর্ণাঙ্গ জাতীয় সংগীত। পরিবর্তন ফাউন্ডেশনের এই আয়োজনের পেছনে লক্ষ্য ছিল দেশের তরুণ প্রজন্মের কাছে জাতীয় সংগীতটি তুলে ধরা।

এই প্রসঙ্গে পরিবর্তনের প্রতিষ্ঠাতা আহসান ভূঁইয়া জানান, “এখন পর্যন্ত জাতীয় সংগীতের পূর্ণাঙ্গ সংস্করণ কেউ কাভার করেননি। কিছু সংস্করণ ইউটিউবে পাওয়া গেলেও সেগুলো অনেক দিন আগের, যা বেশির ভাগ অসম্পূর্ণ।”

তিনি বলেন, “আমরা এমন একটি আধুনিক সংস্করণ কাভার করেছি, যা তরুণ প্রজন্মের শ্রোতাদের দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ করবে। সবাই গাড়িতে বা বাসায়ই নয়, আমরা চাই দেশীয় সব অনুষ্ঠানে শ্রোতারা গানটি শুনবেন।”

পরিবর্তনের এই বিশেষ উদ্যোগে অংশ নেন একাধিক নতুন কণ্ঠশিল্পী। তাঁরা সবাই ‘নতুন গানের খোঁজে’ প্রতিযোগিতা থেকে এসেছেন। এই প্রতিযোগিতায় বিজয়ী মাশা ইসলাম, ইন্নিমা রোশনি, মাজহারুল মিকাত, আদিব আল মহসিন ও মিঠুন দত্ত। একঝাঁক নতুন শিল্পীর অংশগ্রহণ প্রসঙ্গে আহসান ভূঁইয়া বলেন, “স্থানীয় এবং উদীয়মান শিল্পীদের সমর্থন জোগানো পরিবর্তনের অন্যতম উদ্দেশ্য। তা ছাড়া আমাদের পরিবর্তন ফাউন্ডেশন একটি অলাভজনক প্রতিষ্ঠান, যা বাংলাদেশের সুবিধাবঞ্চিত জনগোষ্ঠীকে আরও উন্নত জীবনযাপন ও ক্ষমতায়নে সহায়তা করে।”